logo-img

২১, অক্টোবর, ২০১৯, সোমবার | | ২১ সফর ১৪৪১


রানের হারের দুঃখগাঁথা বাংলাদশ

রিপোর্টার: স্পোর্টস এডিটর | ০৮ জুন ২০১৯, ১১:৫৫ পিএম


রানের হারের দুঃখগাঁথা বাংলাদশ

অনেকদিনের পুরানো একটা হিসেব চুকিয়ে দেয়ার ব্যাপার ছিলো। 

একেবারে হাত ঝেড়ে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের মাঠে বাংলাদেশকে সেই হিসেব চুকিয়ে দিলো! ম্যাচ জিতলো ১০৬ রানে। কার্ডিফের এই ম্যাচের ফল তো আসলে জানা হয়ে গেলো ইংল্যান্ডের ইনিংসের পরই! ৩৮৬ রান করে হারা দল যে বিশ্বকাপের ম্যাচে কখনো হারেনি। ইংল্যান্ডও সেই রেকর্ড অক্ষুন্ন রাখলো। আর কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনে বাংলাদেশের অপরাজিত থাকার রেকর্ডটা ভেঙ্গে গেলো।

বিশ্বকাপের পেছনের দুই আসরে ইংল্যান্ডকে হারিয়েছিলো বাংলাদেশ। আটবছর পুরানো সেই ক্ষতে এখন কিছুটা হলেও মলম লাগাতে পারছে ইংল্যান্ড। ব্যাটিং- বোলিং-গ্রাউন্ড ফিল্ডিং এবং ক্রিকেটীয় বুদ্ধিমত্তা-সব বিভাগেই এই ম্যাচে বাংলাদেশকে হারালো ইংল্যান্ড।
 
 পেস বোলারদের উপযোগী উইকেটে বোলিংয়ের সুবিধাটা কাজে লাগাতে পারলো না বাংলাদেশ। ইংল্যান্ডের শুরুটাই হলো জমাট। ওপেনিং জুটিতেই ১৯.১ ওভারে রান উঠলো ১২৮। সেই শুরুটা ধরে রাখলো ইংল্যান্ড শেষ পর্যন্ত। ওপেনার জেসন রয় বিশ্বকাপে নিজের তৃতীয় ম্যাচেই সেঞ্চুরি পেলেন। একেবারে যাকে বলে ঝড়ো সেঞ্চুরি। ৫ ছক্কা ও ১৪ বাউন্ডারিতে ১২১ বলে ১৫৩ রান। অপর ওপেনার জনি বেয়ারস্টো ৫০ বলে ৫১ রানে ফিরলেন। জস বাটলার চার নম্বরে নেমে দ্রæতগতিতে ৬৪ রান তুললেন। শুরু, মাঝে এবং শেষের সমান ঝড়ে ইংল্যান্ড এবারের বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ ৩৮৬ রান তুললো। 

বাংলাদেশের বোলাররা এই খরুচে ম্যাচের কথা দ্রুতই ভুলে যেতে চাইবেন!

জিততে হলো করতে হবে ৩৮৬ রান। ব্যাটিংয়ের কোনো সময় বাংলাদেশ ম্যাচ জেতার মতো পরিস্থিতি তৈরিই করতে পারেনি। পুরো ইনিংসে সাকিব আল হাসানের বিশ্বকাপ সেঞ্চুরি এবং মুশফিকের সঙ্গে তৃতীয় উইকেট জুটিতে ১০৬ রান ছাড়া বাংলাদেশের ব্যাটিং নিয়ে ‘গল্প’ করার মতো কিছুই যে নেই!

সাকিব একপ্রান্ত আঁকড়ে ধরে লম্বা সময় ধরে ব্যাটিং করে দেখালেন-এমন টার্গেটের ম্যাচে কেমন ব্যাটিং করতে হয়। কিন্তু সাকিবের সেই ব্যাটিং বাকিরা যে ড্রেসিংরুম থেকে দেখতেই বেশি পছন্দ করলেন!

বিশ্বকাপের মাঠে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সেঞ্চুরিয়ান সাকিব। গেলো বিশ্বকাপে টানা দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করে এই ক্লাবের একমাত্র সদস্য হয়েছিলেন এতদিন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। সেই ক্লাবে সাকিবেরও অভিষেক হলো।

সাকিব ১২ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় ১১৯ বলে ১২১ রান করে আউট হওয়ার পর বাংলাদেশ ইনিংসে কে কিভাবে আউট হলেন, সেই হিসেব রাখার আর প্রয়োজনই দাড়ালো না। অপেক্ষা তখন একটাই-বাংলাদেশ কত রানে হারে?

সৌভাগ্যের মাঠ কার্ডিফ থেকে এবার দুঃখগাঁথা নিয়ে ফিরছে বাংলাদেশ। ১০৬ রানের হারের দুঃখগাঁথা!