logo-img

২৭, মে, ২০১৯, সোমবার | | ২২ রমজান ১৪৪০


নাচল যুদ্ধে পা হারা সেই শিশু

রিপোর্টার: রেডক্রস | ০৯ মে ২০১৯, ০৩:২৯ এএম


নাচল যুদ্ধে পা হারা সেই শিশু

এশিয়ার দেশ আফগানিস্তানের যুদ্ধ এখনো থামেনি। তবু যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটির পাঁচ বছর বয়সী এক শিশুর নাচের দৃশ্য ভেসে বেড়াচ্ছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের নানান প্রান্তে। কিন্তু কজন জানে, এই উল্লসিত নৃত্যের পেছনে আছে আহমদ রহমান নামের ওই শিশুটির জীবনের করুণ আর্তনাদ। 

তালেবানদের পেতে রাখা মাইনে মাত্র আট মাস বয়সেই পা হারায় রহমান। 

সঙ্গে আহত হয়েছিল তার বোন, যার বয়স এখন সাত। কাবুলের দক্ষিণাঞ্চলের লোগার প্রদেশে বসবাস তাদের। দাতব্য সংস্থা রেডক্রসের পুনর্বাসন প্রকল্পের দীর্ঘমেয়াদি রোগী শিশু রহমান। আফগানিস্তানের কিছু এলাকায় রেডক্রস বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা দেয়। শিশু রহমান সেই ভাগ্যবানদের একজন, যে এই বিনামূল্যের চিকিৎসা সুবিধা পেয়েছে। 

সম্প্রতি রেডক্রসের বিনামূল্যে চিকিৎসার আওতায় রহমানের কৃত্রিম পা লাগানো হয়। এই পা লাগানোর পর আনন্দে আত্মহারা হয়ে ওঠে সে। রেডক্রসের এক নার্স রহমানের উল্লসিত নৃত্যরত দৃশ্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আপলোড করলে মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয় ভিডিওটি। 

ভিডিওটি প্রকাশকারী রেডক্রসের কাবুলের মুখপাত্র রয়া মুসায়ি বলেন, ‘আমাদের সেন্টারের সবাই তাকে জানে। 

কারণ ওইদিন সে খুব ভালো মেজাজে ছিল। সে আমাদের পুরো সেন্টারে আনন্দ ফিরিয়ে এনেছে। তার হাসি আর গান থামছিল না। এ কারণেই সে যখন তার নতুন পা পায়, তা আমরা ভিডিও করি। ’ তিনি আরও  বলেন, ‘আমাদের কাজ রোগীদের উৎসাহ ও ইতিবাচক শক্তি দেওয়া। কিন্তু রহমানের বেঁচে থাকার তীব্র আকুতি এখানে সবার বেঁচে থাকার প্রেরণায় পরিণত হয়। বিশেষ করে এখানে সবাই যখন জানে এভাবে হাত-পা হারিয়ে বেঁচে থাকা কতটা ভয়াবহ। আফগানিস্তানে শিশু রহমানের মতো আরও অনেকে আছে। প্রতিদিন শতাধিক মানুষ আমাদের সেন্টারে আসে কৃত্রিম পা পাওয়ার আশায়, যা তারা কিনতে পারে না অর্থাভাবে। ’

২০১৮ সাল থেকে রেডক্রস আফগানিস্তানে ২২ হাজার কৃত্রিম অঙ্গ সরবরাহ করেছে রোগীদের মধ্যে। দেশটিতে গত বছর বিভিন্ন সহিংস ঘটনায় ৩ হাজার ৮০৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৯০০ জনই শিশু। সূত্র : রেডক্রস