logo-img

১৭, জুন, ২০১৯, সোমবার | | ১৩ শাওয়াল ১৪৪০


'পাঠাও' এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে যুক্ত হলেন মাশরাফি

রিপোর্টার: নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০১:০০ পিএম


'পাঠাও' এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে যুক্ত হলেন মাশরাফি

'পাঠাও' এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর মাশরাফি

দেশীয় রাইড শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম পাঠাওয়ের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশা প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ান-ডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর)মাশরাফি বিন মুর্তজাকে প্রতিষ্ঠানটির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর নিয়োগ দেয় পাঠাও কর্তৃপক্ষ। সে অনুষ্ঠানে এ আশা প্রকাশ করেন তিনি।

মাশরাফি বলেন, 'আমি অনেক দিন ধরে লক্ষ্য করছি, পাঠাও কীভাবে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় কার্যকরী ভূমিকা রেখে চলেছে। এখন শুধু দেশ নয়, দেশের বাইরেও পাঠাও তাদের সেবা ছড়িয়ে দিয়েছে। একজন বাংলাদেশি খেলোয়াড় হিসেবে দৃঢ়তার সঙ্গে বলা যায়, পাঠাও লাখ লাখ মানুষের সময় ও অর্থ রক্ষা করবে এবং সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।' 

মাশরাফিকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার ব্যাপারে পাঠাওয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হুসেইন এম ইলিয়াস বলেন, ‘মাশরাফি বিন মুর্তজাকে পাঠাও-এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে পেয়ে আমরা খুবই আনন্দবোধ করছি। সুদীর্ঘ সময় ধরে তিনি বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের সুনাম বৃদ্ধি করে চলেছেন। দেশের প্রতি তার নিঃস্বার্থ ভালোবাসা সর্বজন স্বীকৃত। তার প্রতিটি কর্মকাণ্ডে রয়েছে দেশপ্রেমের ছোঁয়া। আমরা বিশ্বাস করি, মাশরাফির দৃঢ় উপস্থিতি বাংলাদেশের ডিজিটাল খাত বিনির্মাণে ভূমিকা রাখবে। মাশরাফির এই উপস্থিতি বাংলাদেশকে অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে কার্যকরী ভূমিকা রাখবে।’

পাঠাও এর সাথে মাশরাফির নতুন এই যৌথ যাত্রা সমাজে ক্ষমতায়ন, জীবনযাত্রার রূপান্তর, কর্মসংস্থান বৃদ্ধিসহ দেশকে এগিয়ে নিতে অত্যন্ত কার্যকরী ভূমিকা রাখবে বলে পাঠাও কর্তৃপক্ষ জানায়। 

২০১৬ সালে পাঠাও এর যাত্রা শুরু হয় বাংলাদেশে। বর্তমানে রাইড শেয়ারিং কোম্পানিটির  রাজধানী ঢাকাসহ বন্দরনগরী চট্টগ্রাম, সিলেট, নারায়ণগঞ্জ এবং গাজীপুরে কার্যক্রম চালু আছে। সম্প্রতি দেশের বাইরে নেপালেও তাদের কার্যক্রম শুরু করেছে পাঠাও।