logo-img

২৫, জানুয়ারী, ২০২০, শনিবার | | ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১


অতিথি পাখির মিলনমেলা

রিপোর্টার: ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ০২:৫৩ পিএম


অতিথি পাখির মিলনমেলা

শীত আসি আসি করছে। শীত এলেই বাংলাদেশে আগমন ঘটে অতিথি পাখির। প্রতিবছর শীতকাল এলেই জলাশয়, বিল, হাওড়, পুকুর ভরে যায় নানা রং-বেরঙের নাম না জানা পাখিতে। আদর করে আমরা সেগুলোকে অতিথি পাখি নামে ডাকি। নাম অতিথি হলেও এ পাখিরা ঝাঁকে ঝাঁকে আমাদের দেশে হাজির হয় নিজেদের জীবন বাঁচাতে। অতিথি পাখি দেখে লোকেরা আনন্দ পায়।


আর অতিথি পাখির কলকাকলিতে ভরে উঠে প্রাকৃতিক পরিবেশ। আর পৃথিবীর নানা দেশ থেকে সবুজ শ্যামল এ দেশে শীতকালে চলে আসে অতিথি পাখি। এরা সাধারণত শীতকালে সুদূর হিমালয় ও সাইবেরিয়া অঞ্চল থেকে উঠে এসে আমাদের দেশে মনোরম পরিবেশে আশ্রয় নেয়। অতিথি পাখিগুলো বসন্তকাল এলেই আবার চলে যায়। বাংলাদেশে পাখি এ দেশের প্রাকৃতিক উপাদানের মধ্যে অন্যতম হলেও কিছু অসাধু এবং কিছু অসচেতন মানুষ প্রতিবছর অনেক পাখি নিধন করে। অনেকেই শখের বশে আবার অনেকেই খাবারের জন্য পাখি শিকার করে। এতে একদিকে প্রাণী জগৎ ধ্বংসের মাধ্যমে প্রাকৃতিক পরিবেশ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

বাংলাদেশে বন্য প্রাণীর নীতি থাকলেও যথাযথ প্রয়োগ না থাকার কারণে এ নীতির কেউ তোয়াক্কা করে না। ফলে মানুষের হাতে মারা যাচ্ছে অনেক অতিথি পাখি। জীব হত্যা মহাপাপ। তোমরা অন্যায়ভাবে জীবকে হত্যা করো না। তাই জীবের প্রতি মায়া মমতা দেখাতে হবে। আর এ ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে।

অতিথি পাখি শুধু বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে আসে না কিন্তু, এ দেশের প্রাকৃতিক পরিবেশের ভারসাম্য বজায় রাখতে সহায়তা করে। তাই অতিথি পাখির ব্যাপারে সাধারণ জনগণের আরও বেশি সচেতন হওয়া উচিত। সেই সঙ্গে অতিথি পাখি শিকার না করে, তাদের বেঁচে থাকতে সহায়তা করি। আর সেই সঙ্গে আজ বিলুপ্তির পথে অনেক প্রজাতির পাখি ও মানুষের হাতে মারা পড়ছে প্রাকৃতিক অমূল্য সম্পদ পাখি।